দিনের পর দিন ঋণ বেড়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার। আর্থিক দিক থেকে কার্যত দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে এই সংস্থার। সরকার এই সংস্থা বিক্রি করে দেবে বলে আগেই শোনা গিয়েছিল। এবার সেকথা সরাসরি ঘোষণা করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ।

তালিকায় এয়ার ইন্ডিয়ার পাশাপাশি যোগ হয়েছে ভারত পেট্রোলিয়ামের নাম। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ শনিবার ‘টাইমস অফ ইন্ডিয়া’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এই দুই সংস্থা বিক্রির কথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “আমরা এই বিষয়টাতে এগোচ্ছি, আশা করছি চলতি অর্থবর্ষের মধ্যেই কাজ সম্পূর্ণ করতে পারব।” রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের পরিকল্পনার কথা জানতে চাওয়া হলে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ জানান, চলতি অর্থবর্ষে সরকার এই প্রতিষ্ঠানগুলি থেকে এক লক্ষ কোটি টাকা তুলতে চায়। আগামী বছরের মার্চেই সংস্থা দুটি বিক্রি করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সীতারামণ।

তিনি দাবি করেন, এয়ার ইন্ডিয়া নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ দেখেছেন। আন্তর্জাতিক রোড-শোতেও এ নিয়ে উৎসাহ দেখেছেন। যদিও ক্রমাগত লোকসানে চলা এই সংস্থা বিক্রি করতে গিয়ে ধাক্কা খেয়েছে সরকার। এখন কোষাগারের অবস্থা শোচনীয়। তাই এমন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে সরকার।

৫৮,০০০ কোটি টাকা ঋণ মাথায় নিয়ে বসে আছে এয়ার ইন্ডিয়া। গত অর্থবর্ষে এয়ার ইন্ডিয়ার লোকসান হয়েছে ৪৬০০ কোটি টাকা। অন্যদিকে ভারত পেট্রোলিয়ামের ৫৩.২৯ শতাংশ শেয়ার রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের। সেটা পুরোটাই বিক্রি করে দেওয়া হবে।

জিএসটি সংগ্রহ যে আশানুরূপ হচ্ছে না, সে কথাও বলেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী, তবে যে সব জায়গায় ফাঁকফোকর রয়েছে সেগুলি মেরামত করে ফেলায় সংগ্রহ আবার বাড়বে বলে মনে করছেন তিনি।

দেশের অর্থনীতি বৃদ্ধির হার নিম্নমুখী। বিভিন্ন ক্ষেত্রে চাহিদা কমছে। গ্রামাঞ্চলেও চাহিদা কমেছে বলে ন্যাশনাল স্যাম্পেল সার্ভের রিপোর্টে দেখা গেছে। এই অবস্থায় দেশের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে বলে দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। অর্থনীতিবিদদের একাংশ অবশ্য মনে করছেন, বিশ্ববাজারেই এখন অর্থনীতির শ্লথগতি চলছে। সেই তুলনায় ভারতের অবস্থায় ভাল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here