• জাতীয়

    স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে ডেমরায় আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

      প্রতিনিধি ২৬ মার্চ ২০২২ , ৩:৪১:১৪ প্রিন্ট সংস্করণ

    ডেমরা (ঢাকা) প্রতিনিধিঃ

    1

    ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে রাজধানীর ডেমরায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানমহ মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ নিয়ে বিশেষ আলোচনাসভা, ক্রীড়া প্রতিযোগীতা, দেশাত্ববোধক গানের প্রতিযোগীতা ও পুরাস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

    শনিবার দিনব্যাপী ডিএসসিসির ৬৮নং ওয়ার্ডের ঐতিহ্যবাহী এম.এ ছাত্তার উচ্চ বিদ্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক সোহ্রাব হোসেন শিকদারের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ডিএসসিসির ৬৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ডেমরা থানা কৃষক লীগের সভাপতি মো. ইসমাইল হোসেন, বিশিষ্ট শিল্পপতি, ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক এম.এ.বাশার মনির ও শব্দর আলী।

    এ সময় মহান স্বাধীনতার স্থপতি বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান ও মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ নিয়ে বিশেষ আলোচনা করা হয়। পরবর্তীতে বিজয়ীদের মাঝে ৩ কেটাগরিতে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

    অনুষ্ঠানে ৬৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিন তার বক্তব্যে বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি ও স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঋন আমরা কখনোই পরিশোধ করতে পারবনা।

    পাকিস্তানি শাসক চক্রের রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে সকল আন্দোলন-সংগ্রামের নেতৃত্ব দিয়ে জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের জন্য তৈরি করেছেন তিনি। ১৯৫২, ৫৪, ৬২, ৬৬ এর আন্দোলন আর ৬৯-এর গণঅভ্যুত্থান ৭০-এর নির্বাচনে বিজয় সবই জাতির সংগ্রামী ইতিহাসের একেকটি মাইলফলক।

    আর এই সংগ্রামের নেতৃত্ব ও বলিষ্ঠ ভূমিকায় ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বাঙালির অর্থনৈতিক মুক্তি অর্থাৎ দ্বিতীয় বিপ্লবের ডাক দেন বঙ্গবন্ধু। স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশের এই মহান স্থপতিকে মাত্র সাড়ে তিন বছরের মাথায় মানবতার শত্রু, স্বাধীনতাবিরোধী, দেশি-বিদেশি ঘাতকের চক্র সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করে। কিন্তু তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে হত্যা করতে পারেনি।

    আরও খবর 20

    Sponsered content