সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করতে জাতীয় সংসদে ‘সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিল-২০২০’ নামে একটি বিল পাস হয়েছে।

বিলটিতে রাষ্ট্রপতির সইয়ের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হবে। এটি চালু হলে দেশে বিজ্ঞান প্রযুক্তি ও প্রকৌশল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা হবে ২০টি।

বুধবার (১৮ নভেম্বর) রাতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বিলটি পাসের জন্য উত্থাপন করেন শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি। পরে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়। বিলটির ওপর জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠানোর প্রস্থাব কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

গত ৭ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদে উত্থাপনের পর বিলটি অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়। এর আগে গত ২ মার্চ বিলটি মন্ত্রিসভায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়।

বিলটির উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, উচ্চশিক্ষার বিভিন্ন ক্ষেত্রে অগ্রসরমান বিশ্বের সঙ্গে সঙ্গতি রক্ষা ও সমতা অর্জন এবং জাতীয় পর্যায়ে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা, বিশেষ করে বিভিন্ন ক্ষেত্রে আধুনিক জ্ঞানচর্চা ও পঠন-পাঠনের সুযোগ তৈরি ও সম্প্রসারণের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নীতিগত সম্মতির পরিপ্রেক্ষিতে সুনামগঞ্জ জেলায় সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সংসদে উত্থাপিত বিলটি অন্যান্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুসরণ করে প্রণয়ন করা হয়েছে। বিলে রয়েছে ৫৫টি ধারা। সংক্ষিপ্ত শিরোনাম, প্রবর্তন ও সংজ্ঞা ছাড়াও উল্লেখযোগ্য ধারাগুলোর মধ্যে ৯ ধারায় আচার্য, ১০-১১ ধারায় উপাচার্য, ১২ ধারায় উপউপাচার্য, ১৩ ধারায় কোষাধ্যক্ষ, ১৮-২০ ধারায় সিন্ডিকেট, ২১-২২ ধারায় অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল ও ২৯-৩০ ধারায় অর্থ কমিটি গঠন সংক্রান্ত বিধান রয়েছে।

এদিকে জাতীয় সংসদে সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় বিল পাস হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম,এ মান্নান এমপিকে জেলার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজনের অভিনন্দন জানিয়েছেন।,

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে সুনামগঞ্জ-৩(জগন্নাথপুর-দক্ষিণ সুনামগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য বর্তমান পরিকল্পনামন্ত্রী এম,এ মান্নান এমপি জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী হিসাবে জেলার পাগলা বাজাওে এক মহাসমাবেশে সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যলয় স্থাপনে জেলাবাসীকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এরপর তিনি এ বিশ^বিদ্যালয় বিলটি মন্ত্রীসভায় অনুমোদন ও সর্বশেষ জাতীয় সংসদে বিলটি পাসে বিশেষ ভুমিকা পালন করেন। ,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here