চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাজার হাজার মানুষ মারা গেছেন। লাখ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। এখনো কোনো ধরনের ওষুধ বা ভ্যাকসিন উদ্ভাবন করা সম্ভব হয়নি। তবে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির একটি গবেষক দল করোনার টীকা আবিষ্কারের অনেকটা কাছাকাছি পৌঁছে গেছেন। আর সেই দলের অন্যতম সদস্য কলকাতার বাসিন্দা বাঙালি নারী চন্দ্রা দত্ত।

অক্সফোর্ডে বসবাসারী ৩৪ বছরের চন্দ্রা কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছেন। গত বৃহস্পতিবার মানব শরীরের পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে এই ভ্যাকসিন। হিউম্যান ট্রায়ালে উত্তীর্ণ হয়ে গেলে এই ভ্যাকসিন আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে সাধারণের জন্য পাওয়া যাবে। করোনা ভ্যাকসিন টিমের সঙ্গে কাজ করতে পেরে অত্যন্ত গর্বিত বোধ করছেন বলে জানিয়েছেন চন্দ্রা।

কলকাতার গলফ গার্ডেনের বাসিন্দা চন্দ্রা গোখলে মেমোরিয়াল গার্লস স্কুলে পড়াশোনা করেছেন তিনি। তারপর হেরিটেজ ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়োটেকনোজি নিয়ে পড়াশোনা করে ২০০৯ সালে বায়ো টেকনোলজিতে এমএসসি পড়তে যুক্তরাজ্যে চলে যান তিনি। আর এখন করোনার ভ্যাকসিন খোঁজা সেই দলের সঙ্গে কাজ করছেন।

সূত্র: এই সময়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here