৫ বছরের শিশু মরিয়ম। ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত। শিশুর মা আসমা বেগম ভোলার লালমোহন নয়ানীগ্রামের ৪নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা। মেয়ের চিকিৎসার জন্য সবার কাছে সহযোগিতা কামনা করেছেন।

মরিয়মকে নিয়ে বাবা সিরাজুল ইসলাম ভারতের ভেলরে সিএমসি হাসপাতালে গেছেন। কুঞ্জেরহাটের কাছে কালিরহাট বাজারের ছোট ওষুধের দোকানদার সিরাজ। ৩ সন্তানের মধ্যে মেঝ মরিয়ম। ৪ বছর বয়স থাকতে মাথা ব্যথায় ভুগতে থাকে সে। পরে বরিশাল নিয়ে ডাক্তার দেখালে সিটি স্ক্যান করে ব্রেন টিউমারের কথা জানান ডাক্তার।

ঢাকায় নিয়ে নিজের সব পুঁজি দিয়ে অপারেশন করান। কিন্তু অপারেশন ঠিকমতো না হওয়ায় আবারও মাথা ব্যথায় ভুগতে থাকে মরিয়ম। পুনরায় ডাক্তার দেখালে ডাক্তার বলেন, টিউমার এখনও রয়ে গেছে এবং মাথার একটি রগ কেটে গেছে।

যার কারণে তার অবস্থা আরও খারাপ হতে থাকে। উপায়ান্তর না পেয়ে তড়িঘড়ি করে মরিয়মকে বাঁচাতে বাবা সিরাজ বিভিন্ন জনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে চলে যান ভেলর সিএমসি হাসপাতালে। সেখানে নিউরোলজি বিভাগে ডাক্তার দেখালে ডাক্তার অপারেশন করার কথা বলেন। এর জন্য প্রয়োজন ৪ লাখ টাকা।

হাসপাতালের সিট ভাড়া, ওষুধ, দৈনন্দিন খরচসহ আরও কয়েক লাখ টাকার প্রয়োজন। এত টাকা যোগাড় করার মতো অবস্থা নেই সিরাজের। বাড়িতে ঘর-ভিটা ছাড়া আর কোনো জমিও নেই। তাই মরিয়মের মা আসমা বেগম সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন।

সহযোগিতার জন্য উত্তরা ব্যাংক, লালমোহন শাখায় সঞ্চয়ী অ্যাকাউন্ট নং আসমা আক্তার/১২৪৮৮৮। নগদ, বিকাশ ও রকেট নং ০১৭২৮৭৮০০৯০। ভেলরে মরিয়মের বাবা সিরাজের নম্বর +৯১৬২৯০১২৫৮৮৪।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here