গত দুইদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের ক্যাসিনোতে খেলার একটি ভিডিও। এ প্রসঙ্গে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলছেন, দায়িত্বশীল পদে থেকে এ ধরনের আচরণ নৈতিকতার অবক্ষয়। এদিকে সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞার সময় কমাতে বিসিবির সঙ্গে কাজ করছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। দেশে তো বটেই, দেশের বাইরেও সব মাধ্যমে আলোচনায় সাকিব আল হাসান। জুয়াড়ির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেও আইসিসিকে না জানানোয় শাস্তি ভোগ করতে হবে অন্তত ১ বছর। যদিও আইসিসির আইনে আপিলের কোনো সুযোগ নেই।

তবে আছে আশার আলো। সাকিবকে দ্রুত মাঠে ফেরাতে সব ধরনের উদ্যোগ নিতে বিসিবিকে নির্দেশনা দিয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘তার মত খেলোয়াড়ের শাস্তি হওয়া দেশের ক্ষতি হওয়া। তাকে শাস্তি দেয়ার পরেই আমরা বসেছি। আলোচনা করেছি কীভাবে তার শাস্তি কমানো যায়। আমরা চেষ্টা করছি আইসিসির কাছে আবেদন করে সাকিবের শাস্তি কমানোর।’

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের ক্যাসিনোতে খেলার ভিডিওটি নিয়ে বিব্রত যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ও। সরাসরি কোনো মন্তব্য না করলেও বিষয়টিকে প্রতিমন্ত্রী দেখছেন নৈতিকতার অবক্ষয় হিসেবে। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘বাংলাদেশে ক্যাসিনো একটি অপরাধ। সেহেতু যারা এ অপরাধ করছে তাদের আমরা শাস্তি দিচ্ছি। এখন অনেকের কথাই শুনেছি বাইরে এসব করতে। তবে আমি এখন দেখিনি, শুনেছি। তাই এসব নিয়ে কিছু বলতে পারছি না। তবে সবাইকেই শাস্তি পাওয়া উচিত।’

আরএএস/সাএ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here