দেবরের মৃত্যুশোক সহ্য করতে না পেরে এবার আত্মহত্যা করেছেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বৌদি। সুশান্তের মৃত্যুর রেশ না কাটতেই বিহারের বাড়িতে তার মরদেহ পাওয়া গেছে।

মাত্র ১ দিন আগে পরিবার হারিয়েছে ৩৪ বছর বয়সী সুশান্তকে। ছোট ছেলের শোকে বারবার অসুস্থ হয়ে পড়ছিলেন বাবা। আর এবার দেবরের মৃত্যুশোক সামলাতে না পেরে মারা গিয়েছেন সুশান্তের বৌদি।

রোববার দুপুরে টিভির পর্দা থেকেই পরিবার জানতে পারেন, সুশান্তের আত্মহত্যার খবর। এরপরেই যেনো শোক নেমে আসে সুশান্তের আদি বাড়ি বিহারের পূর্ণিয়া জেলায়। সেখানেই কেটেছে তাঁর শৈশব। বিহারের সেই বাড়িতেই থাকতেন সুশান্তের দাদার স্ত্রী সুধা দেবী। মুম্বইতে সুশান্তের শেষকৃত্যের সময়ই নাকি মৃত্যু হয়েছে বৌদি সুধা দেবীর। প্রিয় দেবরের অকাল মৃত্যু কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না তিনি। রবিবার সুশান্তের আত্মহত্যার খবর পৌঁছনোর পর থেকেই খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলেন।

রোববার দুপুরে মুম্বইয়ের বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ। গতকাল মুম্বইয়ের ভিলে পার্লে শ্মশানে শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের। সুশান্তের মৃত্যুর কারণ নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।প্রাথমিকভাবে মনে করে হচ্ছে, অবসাদ থেকেই তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here