আপনার কথায়,আপনার আচরণ,আপনার যুক্তিতে মানছি ছাত্রলীগ খারাপ।তো আপনি ভাল হয়ে কি করেছেন?এই বিপর্যস্ত পৃথিবী আর বিপন্ন বাংলাদেশের সংকটে আপনার ভূমিকা কি?সুশীল আপনি,রাজনীতি পছন্দ করেননা,দেশের কল্যাণ চান এই পরিচয়েই আপনি খুশি?

ছাত্রলীগের সাথে মূলত আপনাদের পার্থক্য ঠিক এই জায়গাটাতেই।আপনি এসি রুমে বসে বসে দেশের পরিবর্তন করে ফেলছেন,আপনি কফির মগ হাতে দেশের পক্ষে দুকলম লিখে ফেলছেন,আপনি ল্যাপটপ অথবা দামী মোবাইলে ফেসবুকে লগইন করে সততা আর নীতির কথা দেশপ্রেমের স্ট্যাটাস দিচ্ছেন।ছাত্রলীগ ধান কাটলে আপনি ট্রল করছেন,ছাত্রলীগ সুরক্ষা সামগ্রী কিংবা খাদ্যসামগ্রী মানুষের কাছে পৌঁছে দিলে আপনি উপহাস করছেন,ছাত্রলীগ যদি তরকারি বিতরণ করে আপনি তাচ্ছিল্য করছেন সেইসাথে ছাত্রলীগ যখন মৃত্যুভয় উপেক্ষা করে করোনায় মৃত লাশের সৎকার কিংবা দাফনের ব্যবস্থা করছে এই আপনিই লোক দেখানো বলে মুচকি হাসছেন।

মোটকথা আপনার যোগ্যতা ঠিক এতটুকুই কারণ আপনি নিজেই জানেন যে,আপনি কখনোই পারবেননা এভাবে দুঃসময়ে আর দেশের ক্রান্তিকালে বিলাসী জীবনের আরামকে হারাম করে জনগণের পাশে দাঁড়াতে।কথার পুঁজি ছাড়া এই আপনার সম্বল বলতে কিছুই নেই সেটা বুঝতে বাকি নেই।

আমার অনেক সুশীল ভাইবোন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একের পর এক ছাত্রলীগের বিষোধগার করছেন,উপহাস করেছেন এমনকি মিথ্যাচার করেছেন।আমি বিচলিত হইনি তাদের এহেন কার্যকলাপে কারণ তারা তাদের তর্জন গর্জন এই ফেসবুকের গন্ডির ভেতরেই আজীবন সীমাবদ্ধ রেখেছে।এক প্যাকেট ত্রান দেয়া,এক গোছা ধান কাটা কিংবা করোনায় মৃত একজনের লাশ কাঁধে নেয়ার সাহস কিংবা মানসিকতা তাদের নেই।মোটকথা ছাত্রলীগের ভাল কাজটা তাদের ভেতরের দূষণকে উগরে দেয়,তাদের ভেতরটা ছাত্রলীগের সুনাম শুনে প্রতিহিংসার অনলে পুড়ে আঙ্গার হয়।তারা ছটফট করে আর সুযোগ খোঁজে ছাত্রলীগের নতুন কোন ভুলের।

ছাত্রলীগের কোন ধন্যবাদ প্রয়োজন নেই তারা তাদের কাজটাই করছে এবং করবে।বঙ্গবন্ধুর আদর্শ,শেখ হাসিনার মমতাই তাদের এগিয়ে চলার অদম্য শক্তি এবং প্রেরণা।উপমহাদেশের বৃহত্তম সংগঠন হিসেবে কিছু ভুল থাকতেই পারে,কিছু অসঙ্গতি থাকতেই পারে তবে দেশের ক্রান্তিকালে এবং দেশকে সুরক্ষিত রাখার সংগ্রামে বারবার ছাত্রলীগের আদর্শিক কর্মীরা ফুলে পরিনত হয় আর একেকটা ছাত্রলীগের কর্মী নিজের রক্তবিন্দু দিয়ে দেশ মায়ের জন্য জীবন উৎসর্গ করার শপথ নিয়ে ঝাপিয়ে পরে দেশের কল্যাণে।

মোঃআরিফুর রহমান
সাবেক ছাত্রলীগ কর্মী
কসবা,ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here