প্রায় মাউন্ট এভারেস্টের আকারের এক অতিকায় গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে! আজ তা পৃথিবীর খুব কাছ দিয়ে উড়ে যাবে। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় যে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাওয়ার, গ্রহাণুর পৃথিবীতে আছড়ে পড়ার যে জল্পনা চলছে, তা কিন্তু সত্য নয়। এ ধরনের জল্পনার কোনও ভিত্তি নেই। খবর আনন্দবাজারের।

৫২৭৬৮ নামে (১৯৯৮ ওআর২) ওই গ্রহাণু প্রায় আড়াই মাইল চওড়া। যখন পৃথিবীর পাশ দিয়ে সেটি উড়ে যাবে, তখন এই গ্রহ থেকে এটির দূরত্ব থাকবে ৬৩ লাখ কিলোমিটার। জানা গেছে, পৃথিবীর খুব কাছাকাছি এলেও ওই গ্রহাণুর সঙ্গে যে দূরত্ব থাকবে, তা চাঁদ ও পৃথিবীর দূরত্বের থেকে প্রায় ১৬ গুণ বেশি।

গ্রহাণু হচ্ছে মহাকাশে পাথুরে বস্তু। সৌরজগত তৈরির সময় এগুলো আলাদাভাবে রয়ে গিয়েছিল। এগুলোর আকার ও আয়তন ভিন্ন ভিন্ন হয়। সূর্য ও অন্য কয়েকটি গ্রহকে ঘিরে আবর্তিত হয় গ্রহাণু। গ্রহাণু প্রায়ই পৃথিবীর পাশ দিয়ে উড়ে যায়। কখনও কখনও খুব কাছেও চলে আসে। ২০১৯ সালে ২০১৯ ওকে নামে একটি গ্রহাণু ভূপূষ্ঠের ৬৫ হাজার কিলোমিটার কাছে চলে এসেছিল।

এখন যে গ্রহাণুর কথা বলা হচ্ছে, তা নাসা’র নিয়ার-আর্থ অ্যাস্টেরয়েড ট্র্যাকিং (এনইএটি)-র পর্যবেক্ষণে ধরা পড়ে। অ্যারেকিবো অবজারভেটরি-তেও ১৯৯৮ ওআর২-র ছবি ধরা পড়ে, তারা তা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছে।

নাসা’র সেন্টার ফর নিয়ার আর্থ অবজেস্ট স্টাডি জানিয়েছে, ওই গ্রহাণু বুধবার সকালের দিকে পৃথিবীর পাশ দিয়ে উড়ে যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here